আশুলিয়ায় যুবলীগ নেতার অফিস ভাংচুর আহত ৪

2 minutes

সুচিত্রা রায়,আশুলিয়া,ঢাকা ঃ

আশুলিয়ায় এক যুবলীগ নেতার অফিসে অতর্কিত হামলার ঘটনা ঘটেছে। এ সময় বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীর ছবি ভাংচুরসহ অফিসের মূল্যবান আসবাবপত্র ভাংচুর করে । তাদেরকে বাঁধা দিতে গেলে সন্ত্রাসীরা  ৪জনকে বেধড়ক পিটিয়ে আহত করে।আহতরা হলো- মোঃ তাজীদুল ইসলাম, মোঃ রাকিবুল, মোঃ হাসিবুল ও মোঃ রানা।  এদের মধ্যে তাজীদুলের অবস্থা গুরুতর হওয়ায় তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।বুধবার রাতে আশুলিয়ায় পূর্ব নরসিংহপুর ইউপি রোড হাজ্বী মার্কেট এলাকায় ইউনিয়ন যুবলীগ নেতা মোঃ জুয়েল মোল্লার অফিসে এ হামলার ঘটনা ঘটে। এঘটনায় ভুক্তভোগী আশুলিয়া থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন।ভূক্তোভোগি ও থানার অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, পূর্ব শত্রুতা জের ধরে বুধবার রাত ৮টার সময় আবু সামা মৃধা, ওয়াসিম, রাব্বি, সোহেল, শাওন, রবি ও শরীফসহ অজ্ঞাত আরো ১০/১২জন দেশীয় অস্ত্রে সজ্জ্বিত হয়ে পূর্ব নরসিংহপুর হাজীমার্কেটের যুবলীগ নেতা জুয়েল মোল্লার অফিসে অতর্কিত সন্ত্রাসী হামলা চালায় এবং অফিসের যাবতীয় মূল্যবান আসবাবপত্র ভাংচুর করে। এমনকি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও মাননীয় প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনার ছবি সম্বলিত ছিলো তাও ভাংচুর করে। এসময় তাদেরকে বাঁধা দেয়ার চেষ্টা করলে চার যুবলীগ কর্মীকে বেধড়ক পিটিয়ে আহত করে। এদের মধ্যে তাজেদুলের অবস্থা গুরুতর হওয়ায় তাকে স্থানীয় নারী ও শিশু স্বাস্থ্য কেন্দ্রে ভর্তি করা হয়।যুবলীগ নেতা মোঃ  জুয়েল মোল্লা জানান, বুধবার রাতে এশার নামাজ পরে এসে আমার অফিস ভাংচুর দেখতে পাই।  আমি জানতে পারি আবু সামা মৃধার নেতৃত্বে ২৫/৩০জন সন্ত্রাসী হামলা চালায়। এসময় আমার কর্মীরা বাঁধা দিতে গেলে। তাদেরকে বেধড়ক মারপিট করে। এঘটনায় আমার ৪জন কর্মী আহত হয়। এদের মধ্যে তাজেদুল নামে আমার এক কর্মী গুরুতর আহত হয়। পরে কোন উপায় না পেয়ে থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করি। আর এই হামলার কারণে আমার প্রায় ১০লাখ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।  ক্ষয় ক্ষতিতে আমি যা না কষ্ট পেয়েছি তার চেয়ে বেশী কষ্ট পেয়েছি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, মাননীয় প্রধান মন্ত্রী, স্থানীয় সাংসদ ও আমার নেতা নূরুল আমীন সরকারের ছবি ভাংচুর হয়েছে।আমি এর সুষ্ঠ বিচারের দাবি জানাই।  ইউনিয়ন যুবলীগের আহবায়ক মোঃ নূরুল আমীন সরকার ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে বলেন, ঘটনাটি  অত্যান্ত দুঃখজনক।  আমরা আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল,  তাই থানায় লিখিত অভিযোগ দেওয়া হয়েছে।  প্রশাসন সঠিক তদন্তের মাধ্যেমে দোষীদের বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন বলেও তিনি আশাবাদ ব্যাক্ত করেন।এ বিষয়ে আশুলিয়া থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, এ ঘটনায় জুয়েল মোল্লা থানায় একটি লিখিত  অভিযোগ করেছেন । রাতেই  ঘটনাস্থল পরিদর্শন করা হয়েছে এবং তদন্ত চলছে।    তদন্ত শেষে পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *