Logo Design Logo Design Logo Design

উজিরপুর উপজেলার হারতা ইউনিয়নের মহিলা সদস্য শান্তনা মল্লিকের বিরুদ্ধে অনিয়মের অভিযোগ ও বিক্ষোভ মিছিল

2 minutes

বরিশাল ব্যুরো:

  • Save

বরিশালের উজিরপুরে হারতা ইউনিয়ন মহিলা ইউপি সদস্য শান্তনা রানী মল্লিকের নামে বিভিন্ন রকমের অনিয়মের অভিযোগ পাওয়া গেছে ১৭/০৮/২০ ইং রোজ সোমবার হারতা ইউনিয়ন পরিষদের মহিলা ইউপি সদস্য শান্তনা রানী মল্লিকের বিরুদ্ধে যাহারা অভিযোগ করেন তারা হলেন নিরঞ্জন সরকার পিতা নরেন্দ্রনাথ সরকার তিনি বলেন সরকারের বয়স্কভাতা প্রথম কিস্তির ৬০০০/ টাকা ব্যাংক থেকে উত্তোলন করে শান্তনা মল্লিক নিয়ে যায়। অপর অভিযোগ কারী কালিপদ মল্লিক পিতা খিরোদ মল্লিক তিনি লিখিত অভিযোগ করে বলেন যে সরকারি আশ্রয় প্রকল্পের ঘর বরাদ্দের নামে আমার কাছ থেকে শান্তনা মল্লিক ১০,০০০/ টাকা নিয়েছেন।অপর অভিযোগ কারী লক্ষী ফলিয়া পিতা মৃত বিমল ফলিয়া তিনি বলেন যে শান্তনা মল্লিক সরকারি বিধবাভাতা বরাদ্দের নামে আমার কাছে ৬০০০/টাকা নেয় এবং উক্ত কার্ডের জন্য প্রদেয় ছবি ও ভোটার আইডি ব্যবহার করে ৩০ কেজি চালের কার্ড করে এবং উক্ত বরাদ্দ কৃত চাল নিজে আত্নসাত করে যা পারে প্রকাশিত হয়। এরপর তার সাথে উক্ত বিষয় নিয়ে বাক বিতন্ড হইলে আমর নামে বরাদ্দ কৃত বিধবা ভাতার বইখানা আমার হাতে দিয়ে এই বিষয়ে কারো কাছে কিছু বলিলে বইখানা বাতিল হইয়া যাইবে মর্মে হুমকি প্রধান করে। ৩০ কেজি চালের কথা বলিলে আমার সাথে খুব খারাপ আচারন করে।এদিকে অপর এক অভিযোগ কারী রতন মল্লিক পিতা রমেশ মল্লিক তিনি বলেন যে সরকারি আশ্রয়ন প্রকল্পের ঘর বরাদ্দের নামে শান্তনা মল্লিক আমার নিকট হতে অন লাইন খরচ দেখিয়ে নগদ ১০,০০০/ টাকা নেয়। পরবর্তী আমার নামে ঘর বরাদ্দ হইলে বরাদ্দ কৃত ঘরের টোকন খানা তার নিকট আটকে রেখে আরো ৩,০০০/টাকা নেয়। এরপর একেইভাবে আরো ৩,০০০/ টাকা দাবী করে যাহা আমার মত গরীব অসহায় মানুষের পক্ষে দেওয়া সম্বাব নয়।আরো উর্মিলা রায় পিতা মৃত কুটিশ্বর রায় বলেন বয়স্ক ভাতা বরাদ্দের জন্য
আমার কাছ থেকে শান্তনা মল্লিক ৭,০০০/ টাকা নিয়েছেন। এদিকে খিতিশ বল্লোভ পিতা ধনঞ্জয় বল্লোভ তিনি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর অভিযোগ করে বলেন যে বয়স্কভাতা দেওয়ার নাম করি আমার কাছে শান্তনা মল্লিক ১০,০০০/ হাজার টাকা নিয়েছেন। আরো অভিযোগ কারীরা হলেন সীমা মল্লিক স্বামী মনমথ মল্লিক,বিজলি মল্লিক স্বামী খোকন মল্লিক, শঙ্কর মল্লিক পিতা ধীরেন মল্লিক, দিলিপ বিশ্বাস পিতা দেবেন্দ্রনাথ বিশ্বস,অঞ্জু বৈরাগী স্বামী পরিতোষ বিশ্বাস,সীমা মল্লিক স্বামী সঞ্জয় মল্লিক,নরেন্দ্র নাথ মল্লিক পিতা নদীরাম মল্লিক আরো অনেকে একটি ন্যায় বিচারের দাবিতে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর একটি লিখিত অভিযোগ দায়েল করলে।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার নির্দেশ আজকে রোজ সোমবার সকাল ১০ টার সময় উজিরপুর উপজেলার হারতা ইউনিয়ন পরিষদের মহিলা ইউপি সদস্য শান্তনা রানী মল্লিক ওরফে শান্তি মল্লিক স্বামী অমৃত মল্লিক এবং ২ নং হারতা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ডাঃ হরেন রায়,ইউপি সদস্য মোঃ ফারুক হোসেন, ইউপি সদস্য কৃষ্ণ বাড়ই,হিরোলাল পাড় এবং তদন্ত অফিসার পিআই ও কর্মকর্তা অয়ন সাহা,সমাজ সেবা কর্মকর্তা আবুল কালাম,মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা কাজী ইসরাত জাহান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। শান্তনা মল্লিক নিজে তদন্তের ঘটনা স্থলে নিজে উপস্থিত ছিলেন এবং তদন্ত শেষ বিক্ষুব্ধ সাধারণ জনতা শান্তনা মল্লিকের অনিয়মের আনিত অনিয়মের কারনে সঠিক ন্যায় বিচারের দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল করেন।তদন্ত অফিসারকে অভিযোগ সম্পর্কে জানতে চাইলে তাহারা বলেন যে আমরা ঘটনা স্থলে এসে সকলের অভিযোগ আমলে নিয়েছি। দুই/এক দিনের মধ্যে আমরা সঠিক তদন্তের প্রতিবেদন জমা দিবো এর আগে আপনাদের সঠিক কিছু বলতে পারছিনা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Translate »
Share via
Copy link
Powered by Social Snap