চুয়াডাঙ্গায় চিকিৎসকের অবহেলায় রোগী মৃত্যুর অভিযোগ

< 1 min read
  • Save

আমাদের সংবাদ / চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রতিনিধিঃ   


চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে চিকিৎসকের দায়িত্বে অবহেলায় রাবেয়া খাতুন নামে এক বৃদ্ধার মৃত্যুর অভিযোগ উঠেছে। এ অভিযোগে রোগীর স্বজনরা হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. শামীম কবীর ও দুই নার্সকে লাঞ্ছিত করেন।

গতকাল শনিবার দুপুরে হাসপাতালের ফিমেল মেডিসিন ওয়ার্ডে এ ঘটনা ঘটে।
চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, জীবননগর উপজেলার ধোপাখালী গ্রামের রাবেয়া খাতুন হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে শুক্রবার রাতে হাসপাতালে ভর্তি হন। পরদিন শনিবার সকালে জ্ঞান হারান তিনি।

এ সময় চিকিৎসকেরা তার হৃৎস্পন্দন না পেলে ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠে রোগীর স্বজনেরা। পরে বাকবির্তকতার এক পর্যায়ে সদর হাসপাতালের আরএমও ডা. শামীম কবির, নার্স আছিয়া খাতুন ও শিউলী পারভীনকে লাঞ্ছিত করেন তারা। পরবর্তীকালে পুলিশ খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

নিহতের ছেলে তরিকুল ইসলামের অভিযোগ, তার মায়ের অবস্থা খারাপ হওয়ায় বারবার চিকিৎসকদের ডাকলেও তারা দ্রুত রোগীর কাছে আসেননি। এছাড়া রোগীকে দ্রুত অক্সিজেন দিতে বললে তারা এতেও অপারগতা প্রকাশ করে। এক পর্যায়ে তার মা রাবেয়া খাতুনের মৃত্যু হয়।

আরএমও ডা. শামীম কবির জানান, রোগীর অবস্থা সংকটাপন্ন শুনে তিনি ওয়ার্ডে ছুটে যান। পরে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে বৃদ্ধাকে মৃত ঘোষণা করেন তিনি। এরপরই ওই রোগির ছেলে তরিকুলসহ কয়েক স্বজন তাকে গালাগালি করেন এবং তাকেসহ দুই নার্সকে লাঞ্ছিত করেন।

চুয়াডাঙ্গা সিভিল সার্জন ডা. এএসএম মারুফ হাসান জানান, ঘটনার পরপরই তিনি হাসপাতালে উভয় পক্ষকে নিয়ে বৈঠক করে বিষয়টি মীমাংসা করেন।

Translate »
Share via
Copy link
Powered by Social Snap