দেশের ডাক্তাররা নন, মধুপুরের সেই হাসপাতালের হাল ধরলেন আমেরিকার ডাক্তার দম্পতি

< 1 min read

  • Save

আমাদের সংবাদ / এস এম মইদুল :

নিউজিল্যান্ডের অধিবাসী ছিলেন ডা. এড্রিক বেকার। আরাম আয়েসের জীবনকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে তিনি জীবন কাটিয়েছেন বাংলাদেশের প্রত্যন্ত গ্রামে। টানা ৩২ বছর টাঙ্গাইল জেলার মধুপুরের কালিয়াকুড়ি গ্রামের দরিদ্র মানুষের চিকিৎসা দিয়েছেন তিনি। তাদের জন্য গড়ে তুলেছিলেন হাসপাতাল। সবাই তার মানবসেবায় মুগ্ধ হয়ে ডাক্তার ভাই বলে ডাকতেন।

দুরারোগ্য ব্যাধিতে আক্রান্ত হলে অনেকেই চেয়েছিলেন তাকে ঢাকায় নিয়ে চিকিৎসা দিতে। তিনি ঢাকা যাননি। নিজের তৈরি হাসপাতালেই ২০১৫ সালে মারা যান এড্রিক বেকার। পর মারা যান ডাক্তার ভাই হিসেবে পরিচিত ডা. এড্রিক বেকার।
মৃত্যুর আগে তিনি চেয়েছিলেন এ দেশের কোনো ডাক্তার যেন গ্রামে এসে তার প্রতিষ্ঠিত এই হাসপাতালের হাল ধরেন। কিন্তু হানিফ সংকেতের ইত্যাদিতে প্রচারিত প্রতিবেদন অনুসারে- এ দেশের একজন ডাক্তারও তার সেই আহ্বানে সাড়া দেননি।

অবাক করা ব্যাপার হলো, দেশের কেউ সাড়া না দিলেও তার আহ্বানে সুদূর আমেরিকা থেকে ছুটে এসেছেন আরেক মানবতাবাদী ডাক্তার দম্পতি জেসিন এবং মেরিন্ডি। যে দেশে যাওয়ার জন্য দুনিয়ার সবাই পাগল সেই আমেরিকার বিলাসবহুল জীবন পেছনে ফেলে বাংলাদেশে এসে গ্রামের ধুলামাটির সঙ্গে পেতেছেন সুখের সংসার। শুধু বঞ্চিত মানুষকে চিকিৎসা দেবেন বলে।

শুধু যে নিজেরা এসেছেন তা নয়, নিজেদের সন্তানদেরও সাথে করে নিয়ে এসেছেন তারা। ভর্তি করেছেন গ্রামেরই স্কুলে। গ্রামের শিশুদের সাথে খেলছে।

গতকাল শুক্রবার (২৯ নভেম্বর) বিটিভিতে প্রচারিত হানিফ সংকেতের ইত্যাদি অনুষ্ঠানে এই দম্পত্তিকে নিয়ে একটি প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। প্রতিবেদনটি প্রকাশের পরপরই তা সামাজিক মাধ্যমে ভাইরাল হয়ে যায়। দরিদ্র মানুষদের জন্য নিউজিল্যান্ডের চিকিৎসক এড্রিক বেকারের প্রতিষ্ঠিত হাসপাতালের হাল ধরে প্রশংসায় ভাসছেন আমেরিকান এই দম্পত্তি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Translate »
Share via
Copy link
Powered by Social Snap