Logo Design Logo Design Logo Design

পটুয়াখালীর মির্জাগঞ্জে ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবর লিখিত অভিযোগ

< 1 min read

এস.এম.নুরনবী, পটুয়াখালীঃ

  • Save

পটুয়াখালী মির্জাগঞ্জ উপজেলার ৫নং কাকড়াবুনিয়া ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ড এর ইউপি সদস্য পবিত্র চন্দ্রের বিরুদ্বে সরকারি ঘর দেয়ার নামে অর্থ হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগের প্রমান পাওয়া গেছে।এছাড়াও নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক অনেকে বলেন, বিদ্যুৎ, টিউবওয়েল, বয়স্ক ভাতা, ভিজিডিকার্ড বাবদ বিভিন্ন সময়ে অর্থ হাতিয়ে নিয়েছে পবিত্র মেম্বার।

সরেজমিন অনুসন্ধানে গিয়ে গত রোববার ভুক্তভোগী অসহায় গরীব ছিউটি বেগমের সাথে কথা বললে তিনি জানান,প্রায় এক বছর হল পবিত্র মেম্বর সরকারি ঘর দেয়ার জন্য আমার কাছ থেকে বিশ হাজার টাকা নিয়েছেন।এখন আবার ত্রিশ হাজার টাকা চাচ্ছেন। টাকা না দিলে ঘর ও দিবে না আর টাকা ও ফেরত দিবে না।এছাড়াও প্রতিবেশী একজন বিধবার কাছ থেকে বয়স্ক ভাতা দেয়ার নামে ৪ হাজার টাকা হাতিয়ে নিয়েছে বলে জানাগেছে।

এ ব্যাপারে গত (১৩ জুলাই)অভিযুক্ত ইউপি সদস্য পবিত্র চন্দ্রের সাথে সরাসরি দেখা করে ঘরের জন্য টাকা নেয়ার বিষয় জানতে চাইলে তিনি প্রথমে অশ্বিকার করেন এবং অভিযোগ কারির সামনে কথা প্রমান করতে চান।সংবাদ কর্মীদের নিয়ে ভুক্তভোগী ছিউটি বেগমের বাড়িতে গেলে উপস্থিত লোকের সামনে ও ছিউটি বেগম টাকা দেয়ার প্রমান মিলে।। ভুক্তভোগী ছিউটি বেগম গতকাল মংগলবার( ১৪ জুলাই) সকাল ১১ ঘটকার সময় ইউপি সদস্য পবিত্র মেম্বরের বিরুদ্বে সরকারি ঘর দেয়ার নামে বিশ হাজার টাকা নেয়া এবং আরো ত্রিশ হাজার টাকা চাওয়ায় উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবর একটি লিখিত অভিযোগ করেন।

এবিষয়ে মির্জাগন্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ সরোয়ার হোসেন বলেন, আমি অভিযোগ পেয়েছি সঠিক ভাবে তদন্তের জন্য ৫নং কাকড়াবুনিয়া ইউপি চেয়ারম্যান কে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে তদন্ত রিপোর্ট পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

তদন্তের বিষয় ৫ নং কাকড়াবুনিয়া ইউপি চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর আলম এর কাছে জানতে তার মুঠোফোনে একাধিক বার কল করেও যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Translate »
Share via
Copy link
Powered by Social Snap