পানির কাছে পরাজয় ??

< 1 min read

আমাদের সংবাদ আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ

পানির তোড়ের কাছে অবশেষে পরাজয় মেনেই নিলেন ফারাক্কা বাঁধরক্ষা কমিটি।ওদিকে ভারতের উত্তর প্রদেশ ও বিহারে রেকর্ড পরিমান বৃষ্টি হওয়ায় পরিস্থিতি আরো নাজুক হয়ে পড়েছে। এতে উপচে পড়ছে ফারাক্কা বাঁধের পানি। এ কারণে ফারাক্কা বাঁধের সবকয়টি লকগেট একসঙ্গে খুলে দিয়েছে ভারতীয় কর্তৃপক্ষ। এর জেরে মুর্শিদাবাদ  ও বাংলাদেশে প্লাবনের আশঙ্কা তৈরি হয়েছে বলে সূত্রে প্রকাশ। ফারাক্কার পানি বছরের পর বছর আটকে রাখে পশ্চিমবঙ্গ সরকার। জনশ্রুতি আছে, যে সময় ওপার বাংলায় পানি ধারণ ক্ষমতার বােইরে চলে যায় তখনই কেবল বাংলাদেশ পানি পায়।অবশ্য খড়া মৌসূমে বরাবরই প্রতিবেশী দাদাদের বারিকৃপা থেকে ধারাবাহিকভাবে বঞ্চিত হয়ে আসছে শেখ মুজিবের বাংলাদেশ।

শুধুমাত্র গঙ্গাতেই নয়, ভাগিরতী, তিস্তা, তোরসাসহ পশ্চিমবঙ্গের মালদা জেলার প্রায় সমস্ত নদীতেই পানি বাড়ছে আশঙ্কাজনকভাবে। একটানা বর্ষণে ইংরেজ বাজার শহরের একাধিক এলাকা পানির তলায়।লালগোলা ভগমানগোলার লোকজনও রয়েছে বন্যা আতংকে। 

গত সোমবার কোনো পূর্ব ঘোষণা ছাড়াই আন্তর্জাতিক নদী গঙ্গার ফারাক্কা ব্যারেজের ১০৯টি লকগেটই খুলে দেয় বাঁধ কর্তৃপক্ষ। এর জেরে নদীর নিম্নগতিতে প্লাবনের সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে। প্রতিক্ষণে পানি বাড়ছে মালদা জেলার ফুলহর, মহানন্দা ও কালিন্দী নদীতেও। 

  • Save

একটানা বৃষ্টিতে প্লাবিত ইংরেজবাজার ও পুরাতন মালদা পুরসভার বিস্তীর্ণ এলাকা। বৃষ্টির জেরে পানি জমেছে মালদা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালেও। জমা পানিতে নাকাল হয়ে সোমবার পথ অবরোধ করেন স্থানীয়রা। ইংরেজবাজার পুরসভার ২৯টি ওয়ার্ডের মধ্যে ২১টিই এখন জলমগ্ন। পুরাতন মালদা পুরসভার ২০টি ওয়ার্ডের ৯টিই পানির তলে নিমজ্জিত। জেলায় একাধিক জায়গায় নদীবাঁধ ভেঙে প্লাবিত হয়েছে বিস্তীর্ণ এলাকা। চরম বিপদসীমার ওপর দিয়ে বইছে গঙ্গা ও ফুলহর। এর ফলে নতুন নতুন এলাকা প্লাবিত হওয়ার খবর মিলছে প্রতিদিন প্রতিক্ষণে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Translate »
Share via
Copy link
Powered by Social Snap