মানিকগঞ্জ নিজের শরীরে আগুন লাগিয়ে গৃহবধু আত্মহত্যা

< 1 min read

মানিকগঞ্জ থেকে রুহুল আমিনঃ

মানিকগঞ্জ সিংগাইরে পুতুল আক্তার(২৬) নামে এক গৃহবধু নিজের শরীরে আগুন লাগিয়ে আত্মহত্যার ঘটনা ঘটেছে।
রবিবার(৩মে) মধ্যরাতে জেলার সিংগাইর উপজেলার ধল্লা ইউনিয়নের ফোর্ডনগর আঠালিয়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।
সোমবার (৪মে) ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসটাতালে চিকাৎসাধীন অবস্তায় মারা যান ওই গৃহবধু।তার সঙ্গে গুরুতর আহত হন দুই বছরের শিশু কন্যা আনহা।হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।
নিহত পুতুল আক্তার ঢাকা কল্যানপুর বস্তির বাসিন্দা মোহাম্মমাদ আলীর মেয়ে।মাস খানিক আগে বাসাভারা নিয়ে থাকতেন তারা।
নিহতের বাবা মোহাম্মদ আলী জানান,৫ বছর আগে পুতুলের সঙ্গে বিয়ে হয় একই বস্তির ছেলে সুমন মিযার সাথে।মেযে ও তার স্বামী বস্তিতেই থাকতেন।কিন্ত মাস খানিক আগে বস্তি আরেক বখাটে মিন্টু মিয়া পুতুল কে বিয়ের প্রলোভন দেখিযে ভাগিয়ে নিয়ে যায়।দু দিন পর মেযেকে উদ্ধার করে আনা হলে,স্বামীর সাথে আবার সংসার শুরু করে।কিন্ত বখাটে মিন্টু মিয়া তাকে নানাভাবে উত্যাক্ত করতে থাকে।সেই কারণে এক মাস আগে তার স্বামী তাকে নিয়ে সিংগাইর বাসা ভাড়া নিযে থাকতেন।
পুতুলের স্বামী সুমন মিয়া জানান,প্রতিদিনের মত স্ত্রী সন্তান নিয়ে আমরা ঘুমিযে পরি।হঠাৎ রাত ১২ টার সময স্ত্রীর চিৎকারে ঘুম ভেঙ্গে যায।ঘুম থেকে ওঠে দেখি স্ত্রীর শরীরে আগুন জ্বলছে।এ সময কন্যার ঘুম ভেঙ্গে গেলে সে তাকে জড়িয়ে ধরে এতে তার শরীরেও আগুন লেগে যায।প্রতিবেশীর সহযোগীতায় পানি ঢেলে আগুন নিভানো হয়।ততখনে দু জনেই গুরুতর আহত হন।প্রতিবেশী মো ওয়াসিম জরুরী সেবা ৯৯৯ এ ফোন করে এ্যাম্বুলেন্স ডাকে।রাতেই তাদের ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্তায় মারা যান পুতুল আক্তার।
সিংগাইর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুস সত্তার মিয়া ঘটনাস্থল পরির্দশন করেছেন।তবে বিকের পর্যন্ত থানায় কোন অভিযোগ হয়নি।তবে লাশ ময়নাতদন্তের পর ঢাকার কবরস্থানে দাফন করা হবে বলে জানান তিনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Share via
Copy link
Powered by Social Snap