মার্কিন সেনা প্রত্যাহারের ঘোঘণায় সিরিয়ায় অস্থিরতা

2 minutes

আমাদের সংবাদ আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ

সিরিয়ায় দেখা দিয়েছে নতুন উত্তেজনা। সিরিয়া থেকে মার্কিন সেনা প্রত্যাহারের ঘোষণা ঘিরে নতুন করে এ অস্থিরতা শুরু হয়েছে। ঘোষণাটি শোনার সঙ্গে সঙ্গে ওই অঞ্চলে সেনা পাঠানোর প্রস্তুতি নিতে শুরু করে তুরস্কও। এ ঘটনায় ট্রাম্প তুরস্ককে অর্থনৈতিকভাবে পঙ্গু করে দেওয়ার হুমকি দিয়েছেন বলেও সংবাদে প্রকাশ।

যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে বিদ্বেষপূর্ণ সম্পর্ক থাকলেও সিরিয়ায় তুরস্কের সামরিক অভিযানের বিরোধিতা করে আসছে ইরান।

খবরে প্রকাশ, গত রোববার আকস্মিক এক ঘোষণায় ট্রাম্প মার্কিন সেনা প্রত্যাহারের ঘোষণা দেন। সিরিয়ায় কুর্দি বাহিনীর পক্ষে অনেক দিন ধরে মার্কিন সেনা মোতায়েন রয়েছে। কুর্দি বাহিনী বরাবরই তুর্কি হামলার হুমকিতে রয়েছে। ট্রাম্প সেনা প্রত্যাহারের ঘোষণা দেওয়ার পর মারমুখী হয়ে ওঠে তুরস্ক। তারা সীমান্তে সেনা পাঠানোর তোড়জোড় শুরু করে। গতকাল মঙ্গলবার সীমান্তে আরও সাঁজোয়া যান পাঠিয়েছে তুরস্ক।

সেনা প্রত্যাহারের ঘোষণা দেওয়ার পর থেকে এ নিয়ে উদ্বিগ্ন ট্রাম্প। তিনি এটাও জোর দিয়ে বলছেন যে ওই এলাকা থেকে মার্কিন সেনা প্রত্যাহারের মধ্য দিয়ে মিত্র কুর্দি বাহিনীকে একা ছেড়ে আসা যাবে না।
ফলে মার্কিন সেনা প্রত্যাহার নিয়ে কুর্দিদের মধ্যে আতঙ্ক বিরাজ করছে। তুর্কি হামলা থেকে বাঁচাতে মার্কিন সেনা ছিল তাদের জন্য সুরক্ষা-ঢাল।
মার্কিন সেনাবাহিনীর সহায়তা নিয়ে কুর্দি বাহিনী আন্তর্জাতিক জঙ্গিগোষ্ঠী ইসলামিক স্টেট গ্রুপের বিরুদ্ধে লড়ছে। অন্যদিকে কুর্দি বাহিনীকে ‘জঙ্গি’ বলে থাকে তুরস্ক।

  • Save


সিরিয়ায় কুর্দি বাহিনীকে যুক্তরাষ্ট্রের সমর্থন দেওয়ার বরাবরই বিরোধিতা করে আসছে তুরস্ক। কারণ, নিষিদ্ধ কুর্দিস্তান ওয়ার্কার্স পার্টি ১৯৮৪ সাল থেকে তুরস্কের বিরুদ্ধে রক্তাক্ত বিপ্লব পরিচালনা করে আসছে।
তুরস্কের ভাষায়, কুর্দি নেতৃত্বাধীন মার্কিন-সমর্থিত সিরিয়ান ডেমোক্রেটিক ফোর্সকে (এসডিএফ) মূলত পরিচালনা করে ওয়াইপিজি মিলিশিয়া। এই মিলিশিয়া নিষিদ্ধ কুর্দিস্তান ওয়ার্কার্স পার্টিরই সম্প্রসারিত একটি অংশ।
ট্রাম্পকে সমর্থন দিয়ে জ্যেষ্ঠ মার্কিন রিপাবলিকান সিনেটর লিন্ডসে গ্রাহাম গতকাল মঙ্গলবার তুরস্ককে সিরিয়ার উত্তরাঞ্চলে সেনা পাঠানোর বিরুদ্ধে সতর্ক করেছেন।

লিন্ডসে গ্রাহাম ট্রাম্পের ঘনিষ্ঠজন। গতকাল এক টুইটে তিনি তুর্কি সরকারের বিরুদ্ধে বলেন, ‘সিরিয়ার উত্তরাঞ্চলে প্রবেশের সবুজ সংকেত নেই আপনাদের। কংগ্রেসে বড় ধরনের দ্বিপক্ষীয় বিরোধিতা রয়েছে। এটাকে আপনাদের লাল রেখা হিসেবে দেখা উচিত, যা আপনাদের অতিক্রম করা উচিত নয়।’

তবে তুরস্ক সিরিয়ার উত্তর-পূর্বাঞ্চল সীমান্তে কুর্দি যোদ্ধাদের ওপর হামলার হুমকি দিয়েই যাচ্ছে।

গতকাল ইরান বলেছে, সিরিয়ায় তুরস্কের সামরিক অভিযানের বিরোধিতা করছে তারা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Translate »
Share via
Copy link
Powered by Social Snap