Logo Design

“মীর সাব্বিরের ‘দাদো’ রচয়িতা পটুয়াখালীর কৃতি সন্তান খলিলুর রহমান”

< 1 min read

এস.এম নুরনবী,পটুয়াখালী জেলা প্রতিনিধিঃ

  • Save

বরিশাল অঞ্চলের বেশ প্রচলিত একটি শব্দ ‘দাদো’। সেই নামে এবার নির্মিত হয়েছে ধারাবাহিক নাটক ” দাদো”। পটুয়াখালী সদর উপজেলাধীন মাদারবুনিয়া ইউনিয়নের কৃতি সন্তান খলিলুর রহমানের রচনায় নাটকটি পরিচালনা করেছেন আদিত্য জনি। এর কেন্দ্রীয় চরিত্রে অভিনয় করেছেন মীর সাব্বির।এর আগেও খলিলুর রহমান রচনা করেছেন “লাভ ইন বরিশাল”সহ আরও অনেক নাটক।

সম্পূর্ণ বরিশালের ভাষায় গ্রামীণ অবকাঠামো উন্নয়ন এবং মাটি ও মানুষের জীবনের বিভিন্ন গল্প তুলে ধরা হয়েছে এ নাটকে।

আজ ২২ আগস্ট থেকে সপ্তাহের প্রতি শনিবার থেকে মঙ্গলবার রাত ১০টায় নাগরিক টেলিভিশনে প্রচার হবে নাটকটি। নাগরিক টিভির অনুষ্ঠান প্রধান কামরুজ্জামান বাবু বলেন, ‘বরিশালের ভাষায় অনেক নাটক নির্মাণ হয়েছে। কিন্তু একেবারে শতভাগ বরিশাল অঞ্চলের ভাষা ও কালচার নিয়ে এটাই প্রথম কোনো ধারাবাহিক নির্মিত হলো। আমাদের বিশ্বাস সিরিজটি দারুণ উপভোগ করবেন দর্শকরা।’

‘দাদো’র গল্প প্রসঙ্গে এর নির্মাতা আদিত্য জানান, পটুয়াখালী জেলার সদর থানার মাদার বুনিয়া ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান খকর উদ্দিন হাওলাদার ফকু। তার বাড়ির কাজের লোক ৩০/৩২ বছর বয়সী দাদো। সন্ধ্যা হলেই দাদো এক গামলা ভাত নিয়ে বাড়ি যায়। বাড়িতে গিয়ে নিজ হাতে প্যারালাইজড মাকে খাওয়ায়।

গ্রামের আরেক মধ্যবিত্ত পরিবারের মেয়ে সোহাগী। দাদোকে সে মনে-প্রাণে ভালোবাসে, দাদোও সোহাগীকে অনেক পছন্দ করে। মুজা পাগলা গ্রামের আরেক বিচিত্র লোক। বাঁশের মাথায় কাঁচি ঢুকিয়ে মুজা সেই লাঠি কাঁধে নিয়ে গ্রাম থেকে গ্রামান্তর ঘুরে বেড়ায়। এই মুজাও চেয়ারম্যানের ষড়যন্ত্রের শিকার। এভাবে গল্পের ডালপালা ক্রমশ বাড়তে থাকে চারপাশে।

নাটকটিতে মীর সাব্বির ছাড়া আরও অভিনয় করেছেন তানিয়া বৃষ্টি, কাজী রাজু, মাসুম বাসার, কল্যাণ, শিরিন আলম প্রমুখ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Translate »
Share via
Copy link
Powered by Social Snap