শৈলকুপায় মেয়েকে উত্যক্ত করার প্রতিবাদ করায় গ্রাম ছাড়া ১টি পরিবার

< 1 min read

এম বুরহান উদ্দীন- শৈলকুপা,ঝিনাইদহ প্রতিনিধি:

  • Save

ঝিনাইদহের শৈলকুপায় মেয়েকে উত্যক্ত করার প্রতিবাদ করায় গ্রাম ছেড়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছেন ১টি অসহায় পরিবার। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার মির্জাপুর ইউনিয়নের সাধুখালী গ্রামে। বিচার চেয়ে দ্বারে দ্বারে ঘুরছেন অসহায় পিতা।

ভুক্তভোগী পরিবারটি জানায়, গত ৩বছর আগে পাশ্ববর্তী উপজেলা হরিণাকন্ডু থেকে এসে সাধুখালী গ্রামে জমি কিনে বাড়ী করে বসবাস করতেন লোকমান কামার। গত ১মাস ধরে সাধুখালী গ্রামের আলা হুজুরের ছেলে আসিফ,কালামের ছেলে শামীম,মোস্তর ছেলে সোহান ও মোতালেব এর ছেলে ইমন তার ৮ম শ্রেণীতে পড়ুয়া মেয়েকে বিভিন্ন ভাবে উত্ত্যক্ত করে। গত বৃহস্পতিবার সন্ধায় লুকমানের স্ত্রী বাড়ীর পাশে ১টি বাড়ী থেকে পানি আনতে গেলে লম্পটরা সবাই মিলে বাড়ীতে ঢুকে তার মেয়েকে ধরে নিয়ে বাইরে তুলে আনার চেষ্টা করে। পরিবারের লোক চলে আসলে ওরা ওখান থেকে চলে যায়। বিষয়টি আলা হুজুর ,কালাম মোতালেবসহ তাদের অভিভাবকের কাছে জানালে তারা উল্টা লোকমান কামারের উপর চড়াও হয় এবং তাকে গ্রামে থাকতে দেবেনা বলে সবাই মিলে একত্রিত হয়ে মারধর ও বাড়ীঘর পুড়িয়ে দেবার হুমকি দেয়। ভয়ে স্ত্রী সন্তানকে নিয়ে বাড়ী ছেড়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছে লোকমান কামার।

মেয়ের বাবা লুকমান কামার কান্না কন্ঠে জানান, আমি বাইরে থেকে এসে সাধুখালি বাড়ী করে আছি। এখানে আমাদের আপন বলতে কেউ নেই ,আমার পক্ষে কথা বলার মতো কেউ নেই, আমাকে মেরে ফেললেও সাক্ষি পযন্ত কেউ দেবেনা। এই গ্রামে সবাই ওদের লোক,সামাজিক ভাবে বিচার চেয়েছিলাম কেউ আমার পাশে দাড়ায়নি,আমি নওদা বলে। উল্টো সবাই মিলে আমাকে মারতে গিয়েছিল,আমি দৌড়ে পালিয়ে বেচেছি।

এলাকার সচেতন মহল বলেন, প্রশাসনের কাছে দাবী উক্ত ঘটনা তদন্ত করে অপরাধীদের আইনের আওতায় আনা হোক।

এদিকে অভিযুক্ত পরিবার আলা হুজুর,কালাম,মোতালেব ও মস্ত ঘটনা মিথ্যা ও ষড়যন্ত্র বলে দাবী করেন। এছাড়া লোকমান কেন, কি কারনে বাড়ী ছেড়ে চলে গেছে তারা জানেন না।

এ বিষয়ে শৈলকুপা থানার অফিসার ইনচার্জ বজলুর রহমান বলেন, এবিষয়ে তার কাছে কোনো লিখিত অভিযোগ আসেনি, অভিযোগ পেলে তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Translate »
Share via
Copy link
Powered by Social Snap