উল্লাপাড়ায় ছাত্রলীগ নেতার বাড়ীতে বিয়ের দাবিতে প্রেমিকার অনশন,প্রেমিক পলাতক।

0
128


সাব্বির মির্জা সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধিঃসিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়ায় বিয়ের দাবিতে প্রেমিক ছাত্রলীগ নেতা রানার(২৩) বাড়ীতে অনশনে করছেন এক প্রেমিকা।
রবিবার রাত থেকে উপজেলার বাঙ্গালা ইউনিয়নের দক্ষিণ-গাইলজানী গ্রামে এ ঘটনাটি ঘটেছে। 


জানা যায়, স্কুলে পড়ার সময় তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। এখন সে কুচিয়ামারা ডিগ্রি কলেজের ছাত্রী। 
এ নিয়ে সোমবার সকালে এলাকায় জনসাধারণের মধ্যে চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়। এ সময় প্রেমিক ছাত্রলীগ নেতা রানার বাড়িতে ভিড় জমান এলাকাবাসী।


স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, সোমবার রাতেআ.খালেক এর ছেলে রানার বাড়িতে একই গ্রামের কলেজ ছাত্রী বিয়ের দাবিতে অনশন করছে।


এর আগে দিন রাতে মিয়ের বাড়িতে মিমের সাথে  অনৈতিক কাজ করার জন্য গেলে গ্রাম বাসীর নজরে পরে। এসময় তাকে ধরার চেষ্টা করলে সে তার মোবাইল, সিম, ঘরি, জুতা রেখে পালিয়ে যায়। কলেজ ছাত্রী নিজের সম্মান বাচাতে ওই প্রেমীকের বাড়ীতে বিয়ের দাবীতে অনশন করছে ।
সেই সময় ছেলের অভিভাবকরা প্রথমে বিয়ের আশ্বাস দিলেও পরে ছেলে এবং তার মা পালিয়ে যায়। বর্তমানে বাড়ীতে কেউ না থাকায় ছেলের পরিবারের তার চাচা কাছে প্রেমিকাকে রেখে দিয়েছে স্থানীয় প্রধানগন।


প্রেমিকা ময়না খাতুন মীম বলেন-গত তিন বছর আগে থেকেই রানার সাথে আমার প্রেমের সম্পর্ক । ও আমাকে বিয়ে করবে বলে আশ্বাস দিয়েছে। আমার দাবি, রানা ও তার পরিবারের লোকজন বিয়ের মাধ্যমে  বিষয়টির সুরাহা করবে। তা না করা পর্যন্ত আমার অনশন চলবে বলে জানান প্রেমিকা।


এ বিষয়ে বাঙ্গালা ইউনিয়নের ইউপি সদস্য হায়দার আলী ও গ্রাম প্রধান হাসেন আলীবলেন, মিয়ের পরিবারের সাথে কথা হয়েছে। তবে ছেলের পরিবার পলাতক থাকায় মীমাংসা করা সম্ভব হয় নাই। তখন নিরুপায় হয়ে ঐ মিয়ে কে ছেলের চাচার কাছে রাখা হয়েছে।


বাঙ্গালা ইউনিয়নের ইউপি চেয়ারম্যান সোহেল রানা বলেন, ঘটনার পর মিমাংসা করার জন্য ইউপি সদস্য হায়দার আলী চেষ্টা করেছে,তবে ছেলের পরিবার পলাতক থাকায় সম্ভব হয়ে নাই, পরে মেয়ের পরিবার থানায় অভিযোগ করেছে বলে বিষয়টি শুনেছি।


উল্লাপাড়া মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) দীপক কুমার দাস বলেন, ঘটনার বিষটি থানায় একটা  অভিযোগ পেয়েছি। অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্ত করে আইন গত ব্যবস্তা নেওয়া হবে।