ঝিনাইদহে কনকনে শীতেও থেমে নেই বোরো চাষের কৃষকেরা

0
212

আব্দুল্লাহ বাশার-(বিশেষ প্রতিনিধি) : কনকনে শীত আর কুয়াশা উপেক্ষা করে বোরো চাষের জমি প্রস্তুত ও চারা লাগাতে ব্যস্ত সময় পার করছে ঝিনাইদহের ৬ উপজেলার কয়েক হাজার কৃষক।

কৃষি বিভাগের তথ্য মতে, জেলার ৬ উপজেলা এবং সদরে ৭৮ হাজার ৮৫৫ হেক্টর জমিতে ইরি বোরো ধান আবাদের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। চলতি মৌসুমে মোট লক্ষ্যমাত্রার শতকরা ৪০ ভাগ জমিতে চারা রোপণের কাজ শেষ হয়েছে। এজন্য ৩ হাজার ৮৫৩ হেক্টর জমিতে বীজতলা তৈরির লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হলেও বীজতলা তৈরি হয়েছে ৪ হাজার ৪০৭ হেক্টর জমিতে।

সরেজমিন গিয়ে দেখা যায়, কেউ ব্যস্ত জমির আইল ঠিক নিয়ে, কেউ লাঙল দিচ্ছে, কেউ দিচ্ছে মই, কেউবা ব্যস্ত ধানের চারা রোপণ নিয়ে।

জেলার কোটচাঁদপুর উপজেলার বহরমপুর গ্রামের কৃষক মঈদুল মিয়া জানান, তিনি এবছর ১৩ বিঘা জমিতে ইরি ধান করবেন। এখন পর্যন্ত ৬ বিঘা জমিতে ধানের চারা রোপণের কাজ শেষ হয়েছে। বাকি জমিতে কাঁদা তৈরির কাজ চলছে। আগামী কয়েক দিনের মধ্যে লাগানো কাজ শেষ হবে। প্রতি বিঘা জমিতে ধানের চারা রোপণ করতে দেড় হাজার টাকা শ্রমিককে দিতে হচ্ছে বলে তিনি জানান।

জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর জানান, জেলার এ বছর ইরি বোরো রোপণের টার্গেট ধরা হয়েছে ৭৮ হাজার ৮৫৫ হেক্টর। তারমধ্যে ৬৯ হাজার ৮৫৫ হেক্টর উফসি জাতের এবং ৯ হাজার হেক্টর হাইব্রিড জাতের।

ঝিনাইদহ জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের ডিডি কৃষিবিদ আজগর আলী জানান, চলতি মৌসুমে ইরি-বোরো আবাদ লক্ষ্যমাত্রা অতিক্রম করবে বলে কৃষি বিভাগ আশা করছে।

তিনি আরো জানান, আজ পর্যন্ত চলতি মৌসুমে জেলায় ৩১ হাজার ৩৫৭ হেক্টর জমিতে ইরি-বোরো ধানের চারা রোপণ করা হয়েছে। যার মধ্যে উফসি জাতের ২৮ হাজার ৬ শ হেক্টর এবং হাইব্রিড ২ হাজার ৭৫৭ হেক্টর।