ত্রয়ী জরিমানার মাধ্যমে  লকডাউনে প্রাইভেট বানিজ্য বন্ধ করা সম্ভব।

0
96

মোঃ আব্দুল আলিম
শিক্ষা প্রতিবেদক


অতিমারিতে সমগ্র দেশ তথা বিশ্বের শিক্ষা ব্যাবস্থার প্রাতিষ্ঠানিক কার্যক্রম যখন বন্ধ তখন এদেশের কতিপয় পন্ডিত সুযোগ পেয়েছে প্রতিভা জাহিরের। মাঠে – ঘাটে, বাগানে তারা নিরবে – নিভৃতে প্রতিভার অনুশীলনে ব্যস্ত। লকডাউনে আমাদের এলাকাই প্রাইভেট স্কুল, ম্যাচ, কোচিং, প্রাইভেট বাণিজ্যে চলছে প্রভাবশালীদের দৌরাত্ম্য। স্বল্প আয়ের প্রাইভেট মাস্টারেরা প্রাইভেট ছাড়লেও প্রাইভেট ছাড়েননি পালের গোদারা। অর্থের বিনিময়ে পাড় পেয়ে যাওয়ার মানসিকতা রয়েছে তাদের। প্রদেয় জরিমানা অর্জিত অর্থের কম হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে যে সব শিক্ষকের তারাই মূলত দাপিয়ে বেড়াচ্ছে, বাকিরা মাঠ ছেড়েছে। প্রাইভেট বাণিজ্যের জন্য শুধু কি শিক্ষকই দায়ীঃ ক্ষতিয়ে দেখা জরুরি। কিছু ক্ষেত্রে দেখাছি মাস্তান টাইপের শিক্ষার্থীরা শিক্ষকদের প্রাইভেট পড়াতে বাধ্য করছে। আবার কিছু ক্ষেত্রে প্রাইভেট বাণিজ্যে স্থানীয় রাজনৈতিক নেতার প্রভাব লক্ষণীয়। ছাত্র, শিক্ষক ও স্থানীয় রাজনৈতিক নেতার জরিমানার মাধ্যমে লকডাউনে প্রাইভেট বানিজ্য বন্ধ করা সম্ভব।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here