নারী শরীর কি দরগার বাতাসা ? চাওয়ার আগেই পাওয়া যাবে?

0
351

সাংবাদিক সজীব আকবরঃসভ্য মেয়েদের মনে হয় আস্তে আস্তে ফেসবুক চালানো একদম বন্ধ হয়ে যাবে।
বাজে কমেন্ট বা নোংরা মন্তব্য, ম্যাসেঞ্জারে উল্টোপাল্টা ছবি প্রেরণ। গভীর রাতে অচেনা মোবাইল ও ফেক আইডি থেকে ভিডিও কল, সবকিছু মিলে সভ্য মেয়েরা আছে খুব বিব্রতকর পরিস্থিতিতে।
সব থেকে বেশি যন্ত্রণায় আছে সুন্দরী মেয়েরা আর প্রবাসীর স্ত্রীরা। অধিকাংশ যুবক ও পুরুষের ধারণা এ যেন ” দরগার বাতাসা ” চাওয়ার আগেই পাওয়া যাবে।
আমরা কয়েকজন বিভিন্ন বয়সী ফেসবুক বন্ধুরা মিলে গত মাসে একটা সাধারণ জরিপ করি। সে জরিপে উঠে আসে ভয়াবহ তথ্য।
এ তথ্যের ভয়াবহ চিত্র দেখলে যে কোনো সভ্য মানুষের মাথা হেঁট হয়ে যাবে।
আর ছেলেদের ও পুরুষদের ক্ষেত্রে উঠে এসেছে চরম অধৈর্যতা।
আমরা জানি প্রেমের কারণে টানা ১২ বছর পুকুরে যেয়ে ছিপ ফেলে রোজ রোজ রজকিনীর অপেক্ষায় থাকতো প্রেমিক চণ্ডিদাস।
কিন্তু বর্তমান যুবক আর পুরুষদের সময় নষ্ট করার মতো সময় একদমই হাতে নেই।
এখনকার ফেসবুক প্রেমের অবস্থা নিম্নরূপ
১. প্রথম দিনেই ফ্রেন্ড রিকোয়েস্ট এ্যাকসেপ্ট করার সাথে সাথেই মিষ্টি প্রেমের অফার।
২. দ্বিতীয় দিনে বলবে চলো কোথাও একটু সামনা সামনি বসি, পরিচিত হয়।
৩. তৃতীয় দিন বলবে বন্ধুর বোনের জন্ম দিন, সবাই গার্লফ্রেন্ডদের নিয়ে যাবে। তুমি কি একটু ঘণ্টাখানেক সময় দিতে পারবে?
৪. চতুর্থ দিন বলবে বন্ধুর ফ্লাটটা একদম খালি, চাবি আমার পকেটে।
৫. পঞ্চম দিনে বলবে চলো পালিয়ে যায়।

উপরোক্ত পাঁচটি ডাকে আপনি সারা দিলে আপনার যে অসুখ হবে এটা সারানোর মতো কবিরাজ পৃথিবীতে নেই।
আর এই পাঁচটি শর্তের কোনোটিতে যদি কোনো কিশোরী যুবতী বা প্রবাসীর স্ত্রী রাজী না হন, তাহলে ষষ্ঠদিন থেকে শুরু হয়ে যাবে ফেসবুকে উল্টোপাল্টা কমেন্ট, হুমকি ধামকি,আর ঘণ ঘণ ভিডিও কল আর ম্যাসেঞ্জারে নোংরা অশ্লীল ছবির বন্যা এবং ব্লাকমেইলিং আর অপহরণের হুমকি।
আমি নিজে একজন পুরুষ হয়েও একথা স্পষ্ট স্বীকার করছি যে বেশিরভাগ যুবক ও পুরুষদের ধারণা নারী শরীর খুবই সস্তা উপকরণ বা ” দরগার বাতাসা” যেনো চাওয়ার আগেই পাওয়া যাবে।