নাসির নগর আবারও বন্যায় ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতির তীব্র সংকট দেখা দিয়েছে

0
67

নাসিরনগর উপজেলা বন্যা ভয়াবহ রূপ ধারণ করেছে। বন্যার পানিতে তলিয়ে গেছে আমন/আউশ ধান,পাট,ফসলি জমি। বর্তমানে অনেক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে।


ভেঙে গেছে ব্রিজ ও অনেক রাস্তাঘাট।যার কারণে ৫ টি ইউনিয়ন উপজেলার সঙ্গে বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে।গত দুইদিন আগে বন্যার পানি কমতে শুরু করলেও বতমানে আবার বন্যার পানি বাড়তে শুরু করেছে। বিভিন্ন ইউনিয়নের মানুষ ভয়াবহ বন্যার পানি বাড়তে দেখে আতঙ্কে আাছে।বসতঘরে পানি থাকায় অনেকে রান্না করতে পারছে না। ইউনিয়নের আশ্রয়কেন্দ্র গুলোতে প্রশাসনের উদ্যোগ্য ত্রাণ বিতরণ করা হচ্ছে। বর্তমানে উপজেলা সদর থেকে চাপরতলা ভলাকোট,চাতলপাড়,গোয়ালনগর সহ ৫ টি ইউনিয়ন বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে। অনেক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। শতাধিক মৎস ও পল্টি খামারি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।বন্যার পানি স্রোতে গোকর্ণ বেরিবাঁধে কুকুরিয়া ব্রিজ ভেঙে গেছে।চতুর্দিকে পানি আর পানি। মানুষের সাথে গৃহপালিত পশু দুর্বোগে পড়েছে। প্রথম ধাপের বন্যার পানি কমতে শুরু করলে মানুষের কিছু আস্তা ফিরে আসে।

কিন্তু বতর্মানে আবার পানি বাড়তে শুরু করেছে। তাই এখন জন সাধারণ দূর্বোগ হয়ে পড়েছে। কৃষকদের সপ্ন পানির নিচে তলিয়ে গেছে। বর্তমানে অবিরাম বৃষ্টি আর বৃষ্টি ও পাহাড়ি ঢলে ১৩ ইউপি মানুষ সীমাহীন কষ্টে আছে। বন্যায় কবলিত মানুষের পাশে সহযোগিতা করার জন্য বর্তমান সংসদ সদস্য ও প্রশাসন এবং সামাজিক সংগঠন গুলো এগিয়ে আসছে। আজ শুক্রবার চাপরতলা ইউনিয়নের ত্রাণ বিতরণ করেন সালাউদ্দিন ভূইয়া ফাউন্ডেশন। সৈয়দ কামরুজ্জামান উচ্চ বিদ্যালয় ও চাপরতলা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে আশ্রয় নেওয়া সকল পরিবারকে তারা প্রাথমিকভাবে সাহায্য করেন এবং উপজেলা নিবাহী কমকর্তা বন্যা মোকাবিলার সকল প্রস্তুতি করে রেখেছে। এবং বিভিন্ন জায়গায় পরিদর্শন করেছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here