প্রধানমন্ত্রীর দেয়া অনুদান ২৫০০ টাকা বিকাশ থেকে টাকা গায়েব

0
207
আজকের খবর

স্বপন চন্দ্র রায় জেলা প্রতিনিধি দিনাজপুর – নিত্য নৈমিত্তিক ঘটনায় পরিণত হয়েছে বিকাশ থেকে টাকা উধাও হওয়ার ঘটনা। গরিব দিন মজুরেরাও ছাড় পাচ্ছে না প্রতারক চক্রের হাত থেকে। অথচ এ বিষয়ে উদাসীন সংশ্লিষ্ঠ কোম্পানী এবং মোবাইল ব্যাংকিং কর্তৃপক্ষ।


করোনা পরিস্থিতিতে ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারের জন্যে মোবাইল একাউন্টে ২৫০০টাকা অনুদান দেয় মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। কিন্তু মোবাইল ফোনে ২৫০০ টাকার এসএমএস আসে কিন্তু পরক্ষণে দেখা যায় একাউন্টে কোনো টাকা নেই। অনেকে অভিযোগ করে বলেন হাজার হাজার কোটি টাকা লেনদেনকারী ডিজিটাল মোবাইল ব্যাংকিং প্রতিষ্ঠানগুলোর ত্রæটির কারণে উধাও হচ্ছে মোবাইলে থাকা অর্থ।


ভুক্তভোগিরা জানান, অভিযোগ দিয়ে কোনো লাভ হয়না কাস্টমার কেয়ারগুলোতে। তাই ক্ষোভে গালাগালিদিয়ে নিজের মন কে শান্তনা দেওয়া ছাড়া কোনো উপায় নেই।
কয়েকটি বিকাশ এজেন্ট এর সাতে কথা বলে জানা যায়, প্রতারক চক্রের ফাদে পা দিয়ে টাকা হারানোর কথা অনেকের কাছে শুনতে পাই আমরা। ইদানীং বিকাশ অ্যাপ থেকে টাকা গায়েবের ঘটনা প্রায়ই শুনতে পাচ্ছি। বিভিন্ন কৌশলে বিকাশ পিন হাতিয়ে নেওয়ার অপচেষ্টা করে। যারা ফাদে পড়ে, খোয়া যায় তাদের অর্থ।
উধাও হওয়া এমনই কিছু ঘটনা ঘটেছে দিনাজপুরের পার্বতীপুরে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক ব্যক্তি বলেন, প্রধান মন্ত্রীর দেয়া অনুদান ২৫০০ টাকা গায়েব হয়ে গেছে আমার বিকাশ থেকে। কিভাবে টাকা উধাও হলো আমি কিছুই বুঝলাম না।


অভিযোগকারী ২য় ব্যক্তি বলেন, টাকা পাওয়ার পর বিকাশ একাউন্ট নিয়ে কোনো ঘাটা-ঘাটি করিনি অথবা একাউন্ট হ্যাক হয় এমন কোনো কাজ করিনি।এমন কি প্রতারক চক্র থেকে কোনো কল আসেনি বিকাশ একাউন্ট হ্যাক হওয়ার মতো।তারপরেও মোবাইল থেকে টাকা গায়েব হয় কি করে।
৩য় ব্যক্তি বলেন, দোকান দার আমাদো পরিচিত, তার কাছে যাওয়ার পর সে আমাকে স্টেটমেন্ট প্রদান করে। সেখানে দেখা যায়, ১৩ তারিখ দুপুর ১২.৪৮ মিনিটে ক্যাশ আউট হয় ০১৫৫০-৬৭৯৯১২ নাম্বারে বিকাশ অ্যাপের মাধ্যমে। যার ট্রানজেকশন আইডি হচ্ছে #৭০০ঘ৪ঠঠঙ

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here