ফুলছড়ির ব্রহ্মপুত্রে বরযাত্রীর নৌকা ডুবির ঘটনা,নিখোঁজ ১।

0
202

মোঃ রোমান আকন্দ,গাইবান্ধা জেলা প্রতিনিধি।

গাইবান্ধার ফুলছড়ি উপজেলার ব্রহ্মপুত্র নদীতে নৌকাডুবির ঘটনায় শিশু মোহনী আক্তার (১১) নামে নিখোঁজ, সন্ধান মেলেনি তার। তার বাড়ি গাইবান্ধা সদর উপজেলার মধ্যপাড়া গ্রামে। তৃতীয় শ্রেণিতে পড়ুয়া মোহনী আক্তার ওই গ্রামের মৃত মোহাম্মদ আলীর মেয়ে। নিখোঁজ মোহনীকে উদ্ধারে তৎপরতা চালাচ্ছে পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা।

গেল বুধবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে ফুলছড়ি উপজেলার ফুলছড়ি ইউনিয়নের  গাবগাছি এলাকার ব্রহ্মপুত্র নদীতে  ৪০ জন বিয়ের বরযাত্রীসহ নৌকাডুবির ঘটনায় নিখোঁজ হয় সে। গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেল ৪টা পর্যন্ত নিখোঁজ মোহনীর কোনো সন্ধান পাওয়া যায়নি।

জানা যায়, গত বুধবার দুপুর গড়ালেই গাইবান্ধা মধ্যপাড়া থেকে ফুলছড়ির আদর্শ গ্রামে বিয়ে করতে যান মানিক মিয়া।৪০ জন আত্মীয়-স্বজন সহ কনে রাশেদা আক্তারকে নিয়ে নৌকা  করে বাড়ি ফিরছিলেন বর মানিক। বর যাএীসহ নৌকাটি চৌভাগিয়া এলাকায় আসলে হঠাৎ অপর একটি নৌকা বরযাএীর নৌকাটিকে ধাক্কা দেয়। এতে বরযাএীসহ নৌকাটি ব্রহ্মপুত্র নদীতে ডুবে যায়। পরে তাৎক্ষণিক ডুবে যাওয়া সবাই নদীর তীরে উঠে এলেও নিখোঁজ হয় মোহনী নামের শিশুটি। তবে নৌকাটি ডুবে যাওয়া স্থানে পানি কম থাকায় অন্যরা অনায়াসে ওঠে আসে।

সাঘাটা ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন ম্যানেজার জাফর আলী বলেন, ‘ঘটনার পর রাতে আমাদেরকে জানানো হয়। পরে আমরা চেষ্টা করে নিখোঁজ মেয়েটিকে উদ্ধার করতে পারিনি। বৃহস্পতিবার সকালে রংপুর থেকে ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল এসে ঘটনাস্থলে উদ্ধার কাজ চলালেও শুক্রবার পর্যন্ত তার সন্ধান মেলেনি।