বিরামপুরে বজ্রপাতে ছেলের মৃত্যু, হাসপাতালে মা

0
123



বিরামপুর (দিনাজপুর) প্রতিনিধি::
দিনাজপুরের বিরামপুর উপজেলায় ক্ষেতে মরিচ উত্তোলোনের সময় বজ্রপাতে বাধঁন রায় (১৮) নামের এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনায় অন্তত ৫ জন আহত হয়েছেন। এদের মধ্যে রুপালী রায়(৪৫) নামের এক মহিলার অবস্থা আশংঙ্খা জনক হওয়ায় তাকে দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে।

(০৩জুন)গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে উপজেলার মুকুন্দপুর ইউনিয়নের চকদূর্গা রামসাপুর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। মৃত বাঁধন রায় ওই এলাকার নারায়ন চন্দ্র রায়ের ছেলে। স্থানীয় মুকুন্দপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো. সাইফুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।


পরিবারের বরাতদিয়ে ইউপি চেয়ারম্যান সাইফুল ইসলাম আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে নিজ বাড়ির পাশে মাঠের জমিতে একই পরিবারের তিনজনসহ ছয় সদস্য ক্ষেতের মরিচ উঠাচ্ছিল। এসময় হঠাৎ তাদের ওপর বিকট শব্দের বজ্রপাত ঘটে। পরে, স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে বিরামপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক বাঁধনকে মৃত ঘোষণা করেন।

বিরামপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের এমার্জেন্সি বিভাগ সুত্রে জানা যায় যে- বৃহস্পতিবার দুপুরে বজ্রপাতে আহত হয়ে একই পরিবারে তিনজনসহ ছয় সদস্য চিকিৎসা নিতে আসেন। তাদের মধ্যে বাঁধন রায় নামে এক যুবক মারা যান। এ ঘটনায় রুপালী রায় নামের এক মহিলার অবস্থা অশংঙ্খাজনক হওয়ায় উন্নত চিকিৎসার জন্য দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে। এছাড়াও বাকিরা প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে হাসপাতাল থেকে বাড়ি চলে গেছেন।


বিরামপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সুমন কুমার মহন্ত বলেন-বজ্রপাতে বাঁধন রায় নামের এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে। এঘটনায় নিহত যুবকের মা রুপালী বেগম আহত হয়ে দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসাপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে বাবা নারায়ন চন্দ্র বাড়িতে রয়েছেন।