ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়া আন্তর্জাতিক চেকপোস্টে দিয়ে ইমিগ্রেশন সিল জাল করে ভারতে প্রবেশ, আটক- ২

0
85

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি : ইমিগ্রেশন পুলিশের সিল জাল করে ভারতে প্রবেশের অপরাধে দুই বাংলাদেশি যুবককে আটক করেছে ইমিগ্রেশন পুলিশ। শনিবার রাতে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়া আন্তর্জাতিক চেকপোস্টে তাদের আটক করা হয়। পরে সিল জালিয়াতির অভিযোগে গ্রেফতার দেখিয়ে আটককৃতদেরকে আখাউড়া থানায় সোপর্দ করেন। আটককৃতরা হলো যশোর জেলার কেশবপুর উপজেলার বেগমপুর গ্রামের ধোনাই মোল্লার ছেলে জাহাঙ্গীর আলম (৩৫) এবং একই জেলার মনিরামপুর উপজেলার খোজালিপুর গ্রামের জমসেদ আলী দফাদারের ছেলে শরিফুল ইসলাম (৩০)। আখাউড়া ইমিগ্রেশন সূত্রে জানা গেছে, আটক দুই যুবক ইমিগ্রেশন চেকপোস্টের শূন্যরেখায় দুই দেশের ফ্লাগ ডাউন শেষ হওয়ার পর চেকপোস্টের বহির্গমনের গেট পার হয়ে আগরতলা স্থলবন্দরে প্রবেশ করে। আগরতলা ইমিগ্রেশন পুলিশ পাসপোর্টের সিল দেখে সন্দেহ হওয়ায় তাদের আখাউড়া চেকপোস্ট ইমিগ্রেশন পুলিশের কাছে ফেরত পাঠায়। এ সময় তাদের পাসপোর্টে দেওয়া আখাউড়া ইমিগ্রেশনের সিলটি জাল থাকায় ইমিগ্রেশন পুলিশ জাহাঙ্গীর আলম ও শরিফুল ইসলামকে গ্রেফতার করে। ইমিগ্রেশন সূত্রে আরও জানা জানায় , ওই দুই যুবক চলতি বছরের ২৬ জুলাই হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর হয়ে ইন্দোনেশিয়ায় যাওয়ার চেষ্টা করেন। এ সময় ইমিগ্রেশন কর্তৃপক্ষ সন্দেহভাজন ভ্রমণকারী হিসেবে তাদের পাসপোর্ট অফলোড সিল দিয়ে দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেন। পরে তারা কৌশলে ভারতের ভিসা নিয়ে আখাউড়ার দালাল চক্রের মাধ্যমে ভারতে প্রবেশ করে। আখাউড়া চেকপোস্ট ইমিগ্রেশন পুলিশের ইনচার্জ স্বপন চন্দ্র দাস জানান, গ্রেফতারকৃত দুই যুবক আখাউড়া ইমিগ্রেশনের সিল জাল করে ভারতে প্রবেশ করে। পাসপোর্টের সিল দেখে আগরতলা ইমিগ্রেশন পুলিশের সন্দেহ হওয়ায় তাদেরকে ফেরত পাঠিয়ে দেয়। পরে যাচাই বাছাই করে সিলটি জাল বলে নিশ্চিত হই। তাদের বিরুদ্ধে পাসপোর্ট জালিয়াতি আইনে মামলা দিয়ে আখাউড়া থানায় হন্তান্তর করেছি। এ ব্যাপারে আখাউড়া থানার পরিদর্শক (তদন্ত) সঞ্জয় কুমার সরকার বলেন, আখাউড়া ইমিগ্রেশন পুলিশ তাদেরকে আটক করে পাসপোর্ট জালিয়াতিসহ জাল জালিয়াতি ধারায় মামলা রুজু করে থানায় সোপর্দ করেছে। যে প্রতারক চক্র তাদেরকে এখানে এনেছে পুলিশ তাদেরকে সনাক্ত করার জন্য অনুসন্ধান করছে। তাদেরকে ধরার জন্য সর্বাত্মক অভিযান পরিচালনা করছি।