মহেশপুরে দুলাভাইয়ের সাথে শ্যালিকার অবৈধ সম্পর্কের বলি ৫ মাসের নবজাত শিশু!

0
111

আব্দুল্লাহ বাশার,, বিশেষ প্রতিনিধি।।ঝিনাইদহের মহেশপুর উপজেলার নেপা ইউনিয়নের ঘোষপুর গ্রামের সেলিমের পুত্র সাহিন আলম (২৭) এর সাথে শ্যামকুড় ইউনিয়নের পদ্মপুকুর গ্রামের বিল্লাল হোসেনের কন্যা ছুমাইয়া খাতুন (২৩) এর বিবাহ হয় গত ৫বছর পূর্বে। তাদের সংসারে ১ ছেলে ও ১মেয়ে হয়।পরবর্তীতে পারিবারিক কলহের জেরধরে তাদের মাঝে দীদীর্ঘদিন সম্পর্ক বিচ্ছিন্ন থাকে। ছুমাইয়া খাতুন দীর্ঘ ৯ মাস তার বাবার বাড়ী থাকার পরে গত ১ম রমজানে ইউনিয়ন পরিষদের বিচারের মাধ্যমে স্বামী শাহিন তাকে ঘোসপুর নিয়ে আসে।


গতকাল শাহিনের মা রাতে দেখতে পায় তার পুত্রবধু ছুমাইয়া খাতুন সন্তান নষ্ট করে ফেলে দেওয়ার জন্য ঘর থেকে বাহিরে যাচ্ছে এবং তার শরীর ও পড়নে থাকা জামা কাপড়ের অবস্থা অস্বাভাবিক।পরে ছুমাইয়াকে সকলে প্রশ্নবিদ্ধ করতে থাকলে সে বলে তার খালাতো দুলাভাই সেজিয়া বাজারপাড়া গ্রামের আলামিন তার সাথে শারীরিক সম্পর্ক করে। সে যখন ৯ মাস পদ্মপুকুর তার পিতার বাড়িতে ছিলো তখন আলামিন প্রায় সময় তাদের বাড়িতে আসা যাওয়া করতো সেই সূত্র ধরে এই সম্পর্কে জড়িয়ে পরে। এবং সে আরো বলে গত ৪ দিন পূর্বে আলামিন তার শ্বশুর বাড়ি এসে তাকে একটি ট্যাবলেট দিয়ে বলে এটি গরম পানি দিয়ে খাওয়ার জন্য।এই বড়ি খাওয়ার পরেই তার পেটে থাকা ৫মাসের সন্তান পড়ে যায়।ওই রাতেই ঘটনাস্থলে পুলিশ পৌঁছে নষ্ট হওয়া শিশু টিকে উদ্ধার করে।ঘটনাস্থলে গেলে শাহিন ও তার স্ত্রী ঘুমাইয়া খাতুনকে বাড়ী পাওয়া যায় নি।তারা মহেশপুর সদর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ছিলেন বলে জানিয়েছেন তার পরিবারের সদস্যরা।

এবং এই বিষয়ে মামলার প্রস্তুতি চলছে বলেও জানান শাহিনের বড় বোন।

এমন নেক্কারজনক ঘটনায় এলাকায় চাঞ্চ্যলের সৃষ্টি হয়েছে।এই বিষয়ে তদন্ত সাপেক্ষে দোষীদের দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তির দাবী জানান স্থানীয় এলাকাবাসী