লালমনিরহাটে বাল্য বিয়ে করতে এসে বর কারাগারে

0
103

এস.বি-সুজন, লালমনিরহাট প্রতিনিধি : লালমনিরহাট জেলার হাতীবান্ধা উপজেলায় সপ্তম শ্রেনীর স্কুলছাত্রীকে বিয়ে করতে এসে কারাগারে গেলেন রতন মিয়া (২২) নামের এক যুবক।
বিয়ে করতে এসে ভ্রাম্যমাণ আদালতে আটক হয়ে তিন মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেওয়া হয় তাকে।

শুক্রবার (১০ ডিসেম্বর) সকালে তাকে লালমনিরহাট কারাগারে পাঠায় পুলিশ।

এর আগে বৃহস্পতিবার (০৯ ডিসেম্বর) রাতে বড়খাতা ইউনিয়নের পশ্চিম সারডুবী এলাকায় বাল্যবিয়ের অনুষ্ঠান থেকে তাকে আটক করে সাজা দেন ভ্রাম্যমাণ আদালতের বিচারক উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সামিউল আমিন।

রতন পার্শ্ববর্তী পাটগ্রাম উপজেলার বাউরা ইউনিয়নের জমগ্রাম এলাকার রহিদুল ইসলামের ছেলে।

হাতীবান্ধা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয় সুত্র জানায়, পশ্চিম সারডুবী এলাকার বড়খাতা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের সপ্তম শ্রেণির এক শিক্ষার্থীর (১৩) নিজ বাড়িতে মধ্যরাতে বাল্যবিয়ে হচ্ছে।

এমন একটি গোপন সংবাদের ভিত্তিতে থানা পুলিশ নিয়ে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করা হয়। এ সময় পুলিশের উপস্থিতি বুঝতে পেয়ে সবাই পালিয়ে গেলেও বর রতন মিয়াকে আটক করে ভ্রাম্যমাণ আদালত।

পরে বাল্যবিয়ের সত্যতা স্বীকার করলে বরকে বাল্যবিয়ে নিরোধ আইনে ৩ মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেয় ভ্রাম্যমাণ আদালত।
সকালে সাজাপ্রাপ্ত বর রতন মিয়াকে লালমনিরহাট কারাগারে পাঠায় হাতীবান্ধা থানা পুলিশ।

এ বিষয়ে হাতীবান্ধা থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এরশাদুল আলম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন।