শার্শার প্রথম তরুন উদ্যোক্তা কৌশিক আতিকুর

0
257

বেনাপোল(যশোর)প্রতিনিধি: যশোর জেলার সীমান্তবর্তী শার্শা উপজেলার প্রথম তরুন উদ্যোক্তা কৌশিক আতিকুর। ২০০১ সালের ২০ আগস্ট শার্শার স্বরুপদাহ গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন তিনি। মধ্যবিত্ত পরিবার থেকে উঠে আসলেও তাঁর স্বপ্ন আকাশ ছোঁয়া। ইতিমধ্যে কৌশিক সফল উদ্যোক্তার তালিকায় নাম লিখিয়েছেন। স্বপ্ন বাস্তবায়নের লক্ষে নিরালস পরিশ্রম করে যাচ্ছেন তিনি। ২০২০ সালে ই-কমার্স বিজনেস মারকিউটো.কম-এর মাধ্যমে তার উদ্যোক্তা জীবনের সূচনা করেন। পরবর্তী তে তিনি এবং তার চার সহপাঠি ইব্রাহিম খলিল, ফারজাত অনিম, আসিফ ইকবাল অনিক, ফাহাদ খানসহ সর্বমোট পাঁচ জন চুক্তিবদ্ধ হয়ে মারকিউটো ট্রেডিং লিমিটেড কোম্পানির যাত্রা শুরু করেন। ১২ আগস্ট ২০২১ তারিখ বাংলাদেশে গভর্মেন্ট এর মাধ্যমে শিকৃতি পাই।

তিনি নিজে একজন সফল উদ্যোক্তা আবার নিজের মত করে আরও উদ্যোক্তা তৈরীর জন্যও কাজ করে যাচ্ছেন নিরলস ভাবে। ছোট থেকেই অদম্য ইচ্ছে টেকনোলজি নিয়ে কাজ করছেন। এই ইচ্ছাশক্তি কে আকড়ে ধরেই অনেক ছোট থেকেই ওয়েবসাইট ডেভেলপমেন্ট, ডিজিটাল মার্কেটিং, ঝঊঙ- সার্স ইন্জিন অপটিমাইজেশনসহ অনেক দক্ষতা অর্জন করেছেন তিনি। তার এসব ছোট বড় অর্জন তার বিজনেস পরিচালনাকে অনেক সহজ করে দিয়েছে।

প্রাথমিকভাবে সবার থেকে উৎসাহ না পেলেও তার বাবা-মা, দাদু (আতিয়ার রহমান) এবং বন্ধুর মত বড় ভাই ইব্রাহিম খলিল (সাইমন) এর থেকে পেয়েছে অনুপ্রেরণা এবং সহযোগিতা। বর্তমানে তার এলাকাবাসীসহ দেশ এবং বিদেশের অনেকের কাছেই প্রশংসিত। দেশি-বিদেশি বিভিন্ন সাপ্লায়ার এবং বায়ারদের সাথে গড়ে তুলেছেন সু-সম্পর্ক।

পড়ালেখার পাশাপাশি কোশিক আতিকুর আজ একজন সফল উদ্যোক্তা। তার নিজ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এর বিভিন্ন কন্টেস্টে অংশগ্রহনের মাধ্যমে অর্জন করেছেন প্রশংসা এবং পেয়েছেন পুরস্কার। প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষাতে কাঁচা থাকলেও সফলতা অর্জন করেছেন টেকনোলজিকে কাজে লাগিয়ে। বর্তমানে কৌশিক আতিকুর মারকিউটো ট্রেডিং লিমিটেড কোম্পানির ঈড়-ঋড়ঁহফবৎ এবং গধহধমরহম উরৎবপঃড়ৎ (ব্যবস্থাপনা পরিচালক) হিসেবে কর্মরত আছেন। তার লক্ষ তার দেশ বাংলাদেশ এবং পুরো এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে সবচেয়ে বড় ই-কমার্স কোম্পানি প্রতিষ্ঠা করা। তার কোম্পানি মারকিউটো ট্রেডিং লিমিটেড এর মাধ্যমে তার দেশের সুনাম অর্জন করা এবং বিশ্বের কাছে নিজের দেশকে তুলে ধরা। এছাড়া তিনি এবং তার টিম নতুন উদ্যোক্তা তৈরির লক্ষে সবসময় কাজ করে যাচ্ছেন। তিনি নিজেকে উদ্যোক্তা হিসেবে পরিচয় দিতে সাচ্ছন্দ বোধ করেন।

তিনি বলেন দেশকে আরো ডিজিটাল করার জন্য ই-কমার্স সহ বিভিন্ন আইটি রিলেটেড কোম্পানি বা সংস্থা গুলোর ভুমিকা অপরিসীম।