শাহজাদপুরে হত্যার পর নিখোঁজের ৪দিন পর যুবকের এসিড গলিত লাশ উদ্ধার।

0
101



সাব্বির মির্জা সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধিঃ সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুর উপজেলার বেলতৈল ইউনিয়নের চর বেলতৈল পশ্চিমপাড়া গ্রামের ধানক্ষেত থেকে পুলিশ নিখোঁজের ৪দিন পর রবিবার দুপুরে আব্দুর রহমান(৩৮) নামের এক ডিগ্রিপাস বেকার যুবকের অর্ধগলিত লাশ উদ্ধার করেছে।

তিনি ওই গ্রামের মৃত শামছুল প্রামাণিকের ছেলে। তার পরিবারের দাবী গত ১৯মে বুধবার রাতের খাওয়া শেষে তার চাচা আব্দুর রহমান নিজ ঘরে ঘুমাতে যায়। এরপর ওই দিন গভির রাতে দূর্বৃত্তরা জমিজমা সংক্রান্ত পূর্বশত্রুতার জেরধরে তাকে মোবাইল ফোনে বাড়ি থেকে বাইরে ডেকে নিয়ে পরিকল্পিত ভাবে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে ও শ্বাসরোধে হত্যার পর পরিচয় গোপন করতে লাশের মুখমন্ডল ও শরীরের বিভিন্ন অংশ এসিড দিয়ে পুড়িয়ে দিয়ে লাশ ধানক্ষেতে ফেলে রেখে পালিয়ে গেছে।

পুলিশ এ ঘটনার সাথে জড়িত সন্দেহে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নিহতের ৩ চাচাতো ভাইকে আটক করেছে। এরা হলেন,ওই গ্রামের মৃত বাহাদুর প্রামাণিকের ছেলে আবুল কালাম(৪৫),আব্দুস সালাম(৫০) ও শহিদুল প্রামাণিকের ছেলে মনিরুজ্জামান(৪০)। এ ছাড়া এ ঘটনায় নিহতের বড়ভাই শাহজাহান প্রামাণিক বাদী হয়ে শাহজাদপুর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়েরের প্রস্তুতি নিচ্ছে।


এ বিষয়ে নিহতর ভাতিজা বাঁধন প্রামাণিক(২০) জানায়, গত ১৯মে বুধবার রাতের খাওয়া শেষে তার চাচা আব্দুর রহমান নিজ ঘরে ঘুমাতে যায়। ওই দিন গভির রাতে দূর্বৃত্তরা জমিজমা সংক্রান্ত পূর্বশত্রুতার জেরধরে তাকে মোবাইল ফোনে বাড়ি থেকে বাইরে ডেকে নিয়ে পরিকল্পিত ভাবে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে ও শ্বাসরোধে হত্যার পর পরিচয় গোপন করতে লাশের মুখমন্ডল ও শরীরের বিভিন্ন অংশ এসিড দিয়ে পুড়িয়ে দিয়ে লাশ বাড়ির অদূরের ধানক্ষেতে ফেলে রেখে পালিয়ে গেছে। পরদিন বৃহস্পতিবার সকালে তাকে ঘরে না পেয়ে অনেক খোজাখুজি করেও তার কোন সন্ধান পাওয়া যায়নি। সেই থেকে তিনি গত ৪দিন ধরে নিখোঁজ ছিল।

এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার রাতে শাহজাদপুর থানায় একটি জিডি করা হয়। রবিবার সকালে কৃষকেরা ধান কাঁটতে মাঠে যাওয়ার সময় একটি ধানক্ষেতের পাশে অর্ধগলিত লাশটি পড়ে থাকতে দেখে খবর দেয়। খবর পেয়ে পরিবারের লোকজন ঘটনাস্থলে ছুটে গিয়ে পায়ের সেন্ডেল,পরনের লুঙ্গী ও গেঞ্জি দেখে তার লাশ সনাক্ত করে। বাঁধন প্রামাণিক আরো জানায়,পুলিশের হাতে আটক ব্যক্তিরা প্রায় ১ মাস আগে জমিজমা সংক্রান্ত পূর্বশত্রুতার জেরধরে তার চাচা আব্দুর রহমানকে হত্যার পর লাশ এসিড দিয়ে পুড়িয়ে ফেলার হুমকি দেয়। এ হত্যার ধরণের সাথে হুমকি দেওয়ার বিষয়টির পুরোপুরি মিল রয়েছে। তাই আমাদের সন্দেহ যে, এ হত্যার সাথে তারাই জড়িত। তাই বিষয়টি পুলিশকে অবহিত করা হলে পুলিশ তাদের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করেছে। আমাদেও আরো ধারণা পুলিশের সঠিক জিজ্ঞাসাবাদে অচিরেই এ হত্যা রহস্য বেড়িয়ে আসবে।


এদিকে খবর পেয়ে শাহজাদপুর থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য সিরাজগঞ্জ বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠায়। এর আগে সিরাজগঞ্জের সিআইডি পুলিশের একটি ফরেনসিক দল লাশের ফিঙ্গার প্রিন্ট ও নানা আলামত সংগ্রহ করেন। এ ঘটনায় এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্যেও সৃষ্টি হয়েছে।


এ বিষয়ে শাহজাদপুর থানার ওসি শাহিদ মাহমুদ খান জানান,খবর পেয়ে নিখোঁজ আব্দুর রহমানের লাশ ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করা হয়েছে। এ ছাড়া এ ঘটনায় সন্দেহভাজন ৩জনকে সিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে। আটককৃতদের থানায় এনে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ চলছে। এ ছাড়া হত্যা রহস্য উদঘাটনে পুলিশের একাধিক টিম মাঠে কাজ করছে। সেই সাথে এ হত্যার সাথে জড়িতদের চিহ্নিত করে তাদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।