সদ্য এইচএসসি পরীক্ষা দেওয়া তরুণী উদ্যোক্তা সাদিয়া ‘র সফলতার গল্প

0
542
তরুণী উদ্যোক্তা সাদিয়া

তরুণী উদ্যোক্তা সাদিয়া বিনতে আলম স্নিগ্ধার স্বপ্নের উদ্যোগের নাম ‘Rejuvenating products BD‘ । ২০২০ সালের শুরু হওয়া ছেলে এবং মেয়েদের এই বিউটি প্রসাধন সামগ্রীর অনলাইন কার্যক্রম ব্যাপকভাবে জনপ্রিয়তা লাভ করেছে।

পরিবারে মা, বাবা, ছোটবোন ও ছোটভাই। এই পরিবারের বড় মেয়ে সাদিয়া। যার জন্য ছোটবেলা থেকেই তার পরিবারের চিন্তা-ভাবনা ভিন্ন ছিল। তিনি এই ২০২২ সালে বিজ্ঞান বিভাগ থেকে সদ্য এইসএসসি পরীক্ষা দিয়েছেন।

Rejuvenating products BD ‘র স্বপ্নযাত্রার দিন


এই তরুণী উদ্যোক্তা সাদিয়া আমাদের বললেন তার স্বপ্নযাত্রার প্রথম দিনগুলোর কথা, ‘ছোটবেলা থেকেই লেখাপড়ার প্রতি আগ্রহ অনেক বেশি ছিল। সবাই ভাবত, হয়তো ডাক্তার বা ইঞ্জিনিয়ার হবো।


পরিবারের স্বপ্নগুলো বুকে নিয়ে ২০২০ সালে এসএসসি পাস করেন। তখনই শুরু হয় করোনার মহামারী। চারপাশের মানুষ যখন জীবিকা নির্বাহ করতে হিমসিম খাচ্ছিল, তখনই তিনি ভাবতে লাগলেন এই মহামারী থেকে কিভাবে নিজেকে এবং নিজের পরিবারকে বাঁচানো যায়। যেই ভাবা; সেই কাজ। ২০২০ জুলাই মাসে ১৫০০ টাকা ইনভেস্ট করে লুকিয়ে লুকিয়ে কিছু মেয়েদের বিউটি প্রসাধন সামগ্রী ফেসবুক পেজের মাধ্যমে বিক্রি করা শুরু করেন। তখন এত সাড়া পেলেন, প্রথম মাসেই লাভ ছিল ৫,০০০ টাকা। এখন পর্যন্ত তার পেছনে ফিরে তাকাতে হয়নি।

অবাক হলেও সত্য, এর পেছনে তার অসম্ভব অধ্যবসায় ছিল। কারণ পড়াশোনার পাশাপাশি ব্যবসা করতে হচ্ছিল ।
পরিবার প্রসঙ্গে বলেন, ‘শুরুর দিকে মা ব্যবসা সম্পর্কে জানতেন। আমাকে তখন শতভাগ সাপোর্ট দিয়েছেন। আস্তে আস্তে বাবা বিষয়টি জানলেন। তবে অনেকে অনেক কটু কথা বলেছে তারপরও ফ্যামিলি থেকে পুরো সাপোর্ট পেয়েছি। কোনোরকম বাধাগ্রস্ত হতে হয়নি।
প্রতিষ্ঠান সম্পর্কে বলেন, ‘ Rejuvenating products BD’ আমার স্বপ্নের প্রতিষ্ঠানের বয়স মাত্র ২ বছর। আমি ফিলিপাইন সহ বাইরের বিভিন্ন দেশের স্কিনের প্রোডাক্ট নিয়ে কাজ করি এবং প্রোডাক্ট গুলো খুবই অথেনটিক, স্কিনের জন্য খুবই উপকারী। শুরু থেকে আজ পর্যন্ত ছেলে মেয়ে উভয় ভোক্তারা আলহামদুলিল্লাহ আমার প্রতি সন্তুষ্ট। আমার সততা , সেই সাথে ভোক্তাদের সন্তুষ্টি অনুযায়ী পণ্য দিয়ে মন জয় করে নিয়েছি।

জাতীয় পত্রিকায় সাংবাদিক নিয়োগ ২০২২

কখনো কখনো ভোক্তাদের ডেলিভারি চার্জ ফ্রি করে দিয়েছি। পণ্য নষ্ট বা হারিয়ে গেলে নিজের ক্ষতি করে ভোক্তাদের সন্তুষ্টি করে দিয়েছি । এখন আমি তাদের আরো বেশি সন্তুষ্টির জন্য প্রতিনিয়ত নতুন উদ্যমে কাজ করে যাচ্ছি। পেজের মাধ্যমে শুরু করলেও এখন আমার নিজস্ব ওয়েবসাইট আছে।


সবশেষে এই তরুণী উদ্যোক্তা বলেন, ‘যেহেতু ব্যবসায়ী এবং উদ্যোক্তা হিসেবেই সুপরিচিত। তাই ভবিষ্যতে আরও নতুন এবং বিস্তর ভাবে ভোক্তাদের উন্নতমানের সেবা দিতে চাই। সেই সাথে আমার ব্যবসার মাধ্যমে আমি বেকারদের কর্মসংস্থানের সুযোগ করে দিতে চাই।