সাংবাদিক রোজিনার নিঃশর্ত মুক্তি ও জড়িতদের শাস্তির দাবিতে ডিমলায় মানববন্ধন

0
148

সুজন মহিনুল,বিশেষ প্রতিনিধি।।প্রথম আলোর জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক সাংবাদিক রোজিনা ইসলামকে সচিবালয়ে প্রায় ছয় ঘণ্টা আটকে রেখে হেনস্তা-নির্যাতন ও মিথ্যে মামলা দিয়ে গ্রেপ্তারের প্রতিবাদ সহ নিঃশর্ত মুক্তি এবং এঘটনায় জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে নীলফামারী জেলার ডিমলায় মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে।বৃহস্পতিবার(২০ মে)দুপুরে উপজেলার স্মৃতি অম্লান চত্বরে ডিমলা প্রেসক্লাব ও  বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক ফোরাম(বিএমএসএফ) উপজেলা শাখার উদ্যোগে এই কর্মসূচি পালিত হয়।মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশে ডিমলা প্রেসক্লাবের সভাপতি মাজহারুল ইসলাম লিটনের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক সহিদুল ইসলামের সঞ্চালনায় উপস্থিত ছিলেন,বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক ফোরাম(বিএমএসএফ)ডিমলা উপজেলা শাখার সভাপতি-সরদার ফজলুল হক, সাধারণ সম্পাদক মহিনুল ইসলাম সুজন,সাংবাদিক আলতাফ হোসেন চৌধুরী,ময়েন কবীর,ইউনুস আলী মোল্লা, আবু হোসেন, আব্দুল মালেক, আনোয়ার হোসেন,জসিম উদ্দিন নাগর,আব্দুল করিম যাদু,আব্দুল কুদ্দুস,আবু মোতালেব,সোহাগ খান লোহানী,নুরনবী ইসলাম মানিক,জাহিদুল ইসলাম,জামান মৃধা, শামিম ইসলাম, রুহুল আমিন,রিপন শেখ,সুজন রায় সহ বিভিন্ন গণমাধ্যমে কর্মরত স্থানীয় সাংবাদিকবৃন্দ ও বিভিন্ন শ্রেণী-পেশার মানুষ।এসময় তারা পেশাগত দায়িত্ব পালনকালে প্রথম আলোর জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক সিনিয়র সাংবাদিক রোজিনা ইসলামকে সচিবালয়ে আটকে রেখে হেনস্তা, নির্যাতন,থানায় নিয়ে যাবার দীর্ঘ ঘন্টা পর  উদ্যেশ্য প্রণোদিত মিথ্যে মামলা দিয়ে ফাঁসানোর তীব্র নিন্দা ও সাংবাদিক রোজিনা ইসলামের মামলা প্রত্যাহার সহ নিঃশর্ত মুক্তি এবং এঘটনার সাথে জড়িত স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান।
উল্লেখ্য: পেশাগত দায়িত্ব পালনের জন্য গত সোমবার সচিবালয়ে গেলে সাংবাদিক রোজিনা ইসলামকে স্বাস্থ্য মন্ত্রনালয়ে ছয় ঘণ্টা আটকে রেখে হেনস্তা করা হয়। পরে তাঁর বিরুদ্ধে উদ্যেশ্য প্রণোদিত প্রায় একশো বছর আগের অফিসিয়াল সিক্রেকস অ্যাক্টে মামলা দিয়ে শাহবাগ থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর ও মঙ্গলবার আদালতের মাধ্যমে রোজিনা ইসলামকে কারাগারে পাঠানো হয়।